(বাংলা অনুবাদ) J.C. Bose: A Beautiful Mind Bengali Meaning | Summary | Class 7

If you are looking for a Bengali meaning of “J.C. Bose: A Beautiful Mind” class 7 story then you have come to the right place. Here you will get a Bengali translation of the story.

J.C. Bose: A Beautiful Mind Bengali Meaning


J.C. Bose: A Beautiful Mind Unit 1


Historically, in 1895, India was under the British rule. 

ইতিহাসের বিবেচনায়, ১৮৯৫ সালে, ভারত ছিল ইংরেজ শাসাধীন।

A different history was made that year at the Town Hall in Calcutta. 

কলকাতার টাউন হলে সেই বছর এক অন্য ইতিহাস রচিত হয়েছিল।

An interesting demonstration was performed by Jagadish Chandra Bose, an Assistant Professor of Presidency College. 

প্রেসিডেন্সি কলেজের সহকারী অধ্যাপক জগদীশচন্দ্র বসু এক আকর্ষনীয় ব্যাখ্যামূলক বক্ত্যব্য রেখেছিলেন।

Everyone was overawed when the electro-magnetic waves traveled from the Lecture Hall to a third room about 75 metres away.

প্রত্যেকে প্রভাবিত হয়েছিল যখন তড়িৎ- চুম্বকীয় তরঙ্গ বক্তৃতা হল থেকে ৭৫ মিটার দূরে তিন নম্বর ঘরে পৌছালো।

These waves passed through three solid walls.

এই ঢেউগুলি তিনটে নিরেট দেওয়ালের ভেদ করে গিয়েছিলো।

This was a remarkable and path-breaking incident which paved the way for future research all over the world.

এটি ছিল এক উল্লেখযোগ্য ও দৃষ্টান্ত সৃষ্টিকারী ঘটনা যা সারা পৃথিবী জুড়ে ভবিষতের অনুসন্ধানের পথ সুগম করেছিল।

Born on 30th November 1858 at Bikrampur (now Munshiganj district of Bangladesh), Jagadish Chandra Bose was a man of diverse talents: a physicist, biologist, botanist as well as a writer of science-fiction.

১৮৫৮ শালীর ৩০শে নভেম্বর বিক্রমপুরে (অধুনা বাংলাদেশের মুন্সিগঞ্জ জেলায়) জন্মগ্রহণ করা জগদীশচন্দ্র বসু ছিলেন বহুমুখী প্রতিভাসম্পন্ন একজন মানুষ: পদার্থবিদ, জীববিজ্ঞানী, উদ্ভিদ বিশারদ এবং একই সঙ্গে কল্পবিজ্ঞান কাহিনীর লেখক।

His father, Bhagwan Chandra Bose, was a leader of the Brahmo Samaj.

তাঁর বাবা, ভগবানচন্দ্র বসু ছিলেন ব্রাহ্মসমাজের একজন নেতা।

He worked as a Deputy Magistrate in Faridpur, Burdwan and in other places.

ফরিদপুর, বর্ধমান এবং অন্যন্য জায়গায় তিনি ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট হিসাবে কাজ করেছেন।

Jagadish Chandra’s education started in a Vernacular school because his father believed that one must know one’s mother tongue before learning any other language. Besides, one should know one’s own people.

জগদীশচন্দ্র বসুর লেখাপড়া শুরু হয়েছিল এক বাংলামাধ্যম স্কুলে কারণ তাঁর বাবা বিশ্বাস করতেন যে অন্য কোনো ভাষা শেখার আগে একজনের নিজের নিজের মাতৃভাষা অবশ্যই শেখা দরকার। তা ছাড়া একজনের নিজের লোকজনকে জানা উচিত।

Speaking at the Bikrampur Conference in 1915, Bose said:

১৯১৫ সালে বিক্রমপুরে কনফারেন্স বলতে গিয়ে বলেন:

“At that time, sending children to English schools was a privileged status symbol. In the vernacular school, to which I was sent, the son of the Muslim attendant of my father sat on my right side, and the son of a fisherman sat on my left. They were my playmates. I listened spellbound to their stories of birds, animals and aquatic creatures. Perhaps these stories created in my mind a keen interest in investigating the workings of Nature. When I returned home from school accompanied by my school fellows, my mother welcomed and fed all of us without discrimination. It was because of my childhood friendship with them that I could never feel that there were ‘creatures’ who might be labelled ‘low-caste’. I never realized that there existed a ‘problem’ common to the two communities, Hindus and Muslims.”

“সেই সময়ে বাচ্চাদের ইংরেজিমাধ্যমে স্কুলে পাঠানো ছিল সুবিধাভোগী শ্রেনীর মানুষের অভিজাত্যর প্রতীক। যে বাংলামাধ্যম স্কুলে আমাকে পাঠানো হয়েছিল, সেখানে, আমার বাবার এক মুসলিম পরিচারকের ছেলে বসত আমার ডানপাশে এবং আমার বামদিকে বসত এক জেলের ছেলে। তারাই ছিল আমার খেলার সঙ্গী। তাদের বলা পাখি, জন্তুজানোয়ার ও জলজ প্রাণীর গল্প আমি মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে শুনতাম। সম্ভত এই গল্পগুলোই আমার মনে প্রকৃতির কাজকর্ম অনুসন্ধানে এক তীব্র আগ্রহ সৃষ্টি করেছিল। স্কুলের বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে আমি যখন স্কুল থেকে বাড়ি ফিরতাম, আমার মা আমাদেরকে স্বাগত জানাতেন এবং কোনো বাছবিচার না করে আমাদের সকলকে খাওয়াতেন। তাদের সঙ্গে ওই শৈশবকালের বন্ধুত্বের জন্যই আমি কখনও অনুভব করতে পারিনি যে এমন অনেক “প্রাণী” আছে যাদের ‘নিচু-জাত’-এর তকমা এঁটে দেওয়া যায়। আমি কখনও উপলব্ধি করিনি যে হিন্দু ও মুসলিম, এই দুটি সম্প্রদায়ের মধ্যে সাধারণ একটি ‘সমস্যা’ বর্তমান।”

In 1869, Bose joined Hare School and six years later he was admitted to St. Xavier’s School in Calcutta.

১৮৬৯ সালে বসু হেয়ার স্কুলে যোগ দেন এবং ছ-বছর পরে তিনি কলকাতার সেন্ট জেভিয়ার্স স্কুলে ভর্তি হন।

He passed the Entrance Examination and joined St. Xavier’s College of Calcutta.

তিনি প্রবেশিকা পরীক্ষায় পাশ করেন এবং কলকাতার সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজে যোগ দেন।

It was here that he came in contact with Jesuit Father Eugene Lafont who played a significant role in developing his interest in natural science.

 এখানেই তাঁর সাক্ষাৎ হয় জেস্যুট ফাদার ইউজিন ল্যাফন্ট-এর সঙ্গে যিনি তাঁর প্রকৃতি বিজ্ঞানের প্রতি আগ্রহ বৃদ্ধিতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করেন।

Later, Bose went to England and secured admission in Christ College, Cambridge, to study Natural Science.

পরবর্তীকালে বসু ইংলান্ডে যান এবং প্রকৃতি বিজ্ঞান নিয়ে পড়াশোনা জন্য কেমব্রিজের ক্রায়্স্ট কলেজে ভরতি হওয়া নিশ্চিত করেন।

In 1884, he received the Natural Science Tripos from the University of Cambridge and a B. Sc. degree from the University of London.

১৮৮৪ সালে, তিনি কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রকৃতি বিজ্ঞানে ট্রাইপোজ ডিগ্রী লাভ করেন এবং লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বি.এসসি ডিগ্রী পান।

The following year, Bose joined Presidency College as officiating Professor of Physics.

পরের বছর, বসু প্রেসিডেন্সি কলেজে পদার্থবিদ্যার ভারপ্রাপ্ত অধ্যাপক হিসাবে যোগ দান দেন।

But he was not provided facilities of research.

কিন্তু তাঁকে গবেষনার সুযোগ দেওয়া হত না।

He was also offered lower salary than his European colleagues.

তা ছাড়া তাঁর ইউরোপীয় সতীর্থদের তুলনায় তাঁকে কম মাইনে দেওয়া হত।

Bose had a remarkable sense of self-respect and national pride.

বসুর মধ্যে এক অন্য আত্মসম্মানবোধ এবং জাতীয় অহংকারবোধ ছিল।

Therefore, as a sign of protest, he continued his teaching assignment for three years without accepting his salary.

তথাপি, প্রতিবাদের নমুনাস্বরূপ, তিনি তাঁর মাইনে গ্রহণ না করেই তিন বছর তাঁর শিক্ষকতার দায়িত্ব চালিয়ে যান।

Finally, the Director of Public Instruction and the Principal offered him a permanent teaching post.

শেষ পর্যন্ত, পাবলিক ইন্সট্রাকসনের ডিরেক্টর ও প্রিন্সিপাল তাঁকে স্থায়ী শিক্ষকতার পদ দেন।


J.C. Bose: A Beautiful Mind Unit – II


Bose had invented several sensitive instruments.

বোস বেশ কিছু সুবেদী যন্ত্র আবিষ্কার করেন।

One of them is the Crescograph which is used to measure the growth rate of plants.

তাদের মধ্যে একটি হল ক্রেস্কোগ্রাফ, যেটি গাছের বৃদ্ধির হার মাপার জন্য ব্যবহার করা হই।

Through his experiments Bose showed that plants behave in the same manner as human beings, although plants take longer to respond than animals.

তাঁর পরীক্ষা-নিরীক্ষার দ্বারা বোস দেখিয়েছিলেন যে গাছেরাও মানুষের মতই একই ধরনের আচরণ করে, যদিও গাছেরা প্রানীদের তুলনায় সাড়া দিতে বেশি সময় নেয়।

He proved that plants are sensitive to heat, cold, light, noise and other external stimuli, just like human beings.

তিনি প্রমান করেছিলেন যে গাছেরা মানুষের মতোই তাপ, ঠান্ডা, আলো, শব্দ এবং অন্যন্য বাহ্যিক উত্তেজকের প্রতি অনুভতিপ্রবন।

By injecting poison into a living plant Bose showed that they react in the same manner as we do.

একটি জীবন্ত গাছে বিশ প্রবেশ করিয়ে একইরকম প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে।

Scientific research on electro-magnetic waves was initiated by J.C. Bose in the late 19th century.

১৯ শতকের শেষের দিকে তরিৎ-চুম্বকীয় তরঙ্গের ব্যাপারে বিজ্ঞানভিত্তিক অনুসন্ধানের কাজের সূচনা করেছিলেন জে.সি.বোস।

It was the Italian scientist Marconi who got the patent for the invention of wireless telegraphy.

ইতালীয় বিজ্ঞানী মার্কনি তারবিহীন টেলিগ্রাফ আবিষ্কারের জন্য স্বত্ব লাভ করেছিলেন।

But we must remember that Bose’s public demonstration in Calcutta along the same lines happened much earlier.

কিন্তু আমাদেরকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে ওই একই বিষয়ে কলকাতায় বোসের জনসমক্ষে ব্যাখামূলক বক্তৃতা অনুষ্ঠিত হয়েছিল অনেক আগেই।

Instead of looking for commercial benefit for his inventions, Bose made his inventions public in order to allow others to advance further along the lines of his research.

তাঁর আবিষ্কারের বানিজ্যিক লাভের প্রত্যাশা না করে, বোস তাঁর আবিষ্কারের জনসমক্ষে প্রকাশ করেছিলেন যাতে তাঁর অনুসন্ধানের পথ ধরে অন্যরা আরও এগিয়ে যেতে সমর্থ হন।

However, Bose’s place in history has now been re-evaluated.

যাই হোক, ইতিহাসে বোসের স্থান এখন পুনর্মুল্যায়িত হয়েছে।

This great Indian scientist was eventually crowned with glory when he was awarded Knighthood by the British government in 1917.

এই বিখ্যাত ভারতীয় বিজ্ঞানীকে শেষপর্যন্ত গৌরবমুকুট পরানো হয়েছে যখন ১৯১৭ সালে ইংরেজ সরকার তাঁকে ‘নাইটহুড’ উপাধিতে ভূষিত করেন।

He was also conferred many other awards like ‘Fellow of the Royal Society’, ‘Companion of the Order of the Indian Empire’ etc.

তাঁকে আরও অনেক পুরস্কার প্রদান করা হয়েছিল যেমন ‘ফেলো অব দ্য রয়াল সোসায়টি’, কম্পানীয়ন অব দ্য অর্ডার অব দ্য ইন্ডিয়ান এম্পায়ার’ প্রভৃতি।

Needless to say, he is one of the greatest scientists ever born in our country.

বলার প্রয়োজন পরে না যে, তিনি হলেন দেশে জন্মানো মহানতম বিজ্ঞানিদের মধ্যে অন্যতম।

Sir J.C. Bose wrote several books and published many research papers in leading science journals.

স্যার জে.সি.বোস অনেক বই লেখেন এবং প্রথম সারির বিজ্ঞান পত্রিকায় অনেক গবেষণাপত্র প্রকাশ করেন।

Some of his famous books are Response in the Living and the Non-living (1902), The Nervous Mechanism of Plants (1926), Major Mechanism of Plants (1928) etc.

তাঁর লেখা কিছু বিখ্যাত বই হল ‘রেসপন্স ইন দ্য লিভিং এন্ড দ্য নন-লিভিং’ (১৯০২), ‘দ্য নার্ভাস মেকানিজম অব প্লান্টস’ (১৯২৬), ‘মেজর মেকানিজম অব প্লান্টস’ (১৯২৮), ইত্যাদি।

In 1896, Bose wrote Niruddesher Khoje, a science fiction.

১৮৯৬-এ বোস ‘নিরুদ্দেশের খোঁজে’ নামক একটি কল্পবিজ্ঞানের কাহিনী লেখেন।

In fact, he was the first writer of science fictions in Bangla.

ঘটনা হল, তিনিই হলেন বাংলায় কল্পবিজ্ঞান কাহিনীর প্রথম লেখক।

In November 1917, Bose founded the ‘Bose Institute’ at his own house in Calcutta.

১৯১৭ সালের নভেম্বর মাসে, বোস কলকাতায় তাঁর নিজের বাড়িতে ‘বোস ইনস্টিটিউট’ প্রতিষ্ঠা করেন।

He donated ‘Bose Institute’ to the nation for research on science.

বিজ্ঞানের অনুসন্ধানের জন্য তিনি ‘বোস ইনস্টিটিউট’-কে জাতির উদ্দেশ্যে দান করেন।

This great Indian scientist breathed his last on 23rd November, 1937.

এই বিখ্যাত ভারতীয় বিজ্ঞানী ১৯৩৭ সালের ২৩শে নভেম্বর শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

Book of Nature Meaning | Questions & Answers

The Riddle Meaning | Questions & Answers

We Are Seven Meaning | Questions & Answers

The Beauty and the Beast Meaning | Questions & Answers

Uncle Podger Hangs a Picture Meaning | Questions & Answers

The Vagabond Meaning | Questions & Answers

Mowgli Among The Wolves Meaning | Questions & Answers

The Story of Proserpine Meaning | Questions & Answers

J.C. Bose : A Beautiful Mind Meaning | Questions & Answers

The Echoing Green Meaning | Questions & Answers

The Axe Meaning | Questions & Answers

My Diary Meaning | Questions & Answers

Ghosts on the Verandah Meaning | Questions & Answers

Leave a Comment

আদানি এবার মুকেশ আম্বানির চেয়েও এগিয়ে WBBSE Class 6 English Book Solution ভারতের 7টি সেরা গাড়ি বীমা কোম্পানি আপনার সিটবেল্ট বেঁধে নিন: 3 ঘন্টা 33 মিনিটে দিল্লি থেকে বারাণসী (উচ্চমাধ্যমিক) West Bengal HS Class 12 New Routine 2022